মাহমুদুরের মুক্তি চেয়ে সম্পাদকদের বিবৃতিতে ‘বিস্মিত’ ১৫ বিশিষ্ট ব্যক্তি
এইদেশ ডেস্ক, সোমবার, মে ২০, ২০১৩


আমার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের মুক্তি চেয়ে ১৬ সম্পাদকদের বিবৃতিতে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, চিত্রশিল্পী কাইয়ুম চৌধুরীসহ দেশের বিশিষ্ট ১৫ ব্যক্তি।সুনির্দিষ্ট ফৌজদারি অভিযোগে গ্রেপ্তার মাহমুদুরের মুক্তি চেয়ে ১৬ সম্পাদকের বিবৃতির ‍দুই দিন বাদে সোমবার ১৫ নাগরিকের বিবৃতি এসেছে।

“শুধু পেশাগত ঐক্যের কারণে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের বিরোধী মাহমুদুর রহমানের মুক্তির জন্য দেশের কতিপয় বরেণ্য পত্রিকার সম্পাদকের বিবৃতি প্রদানে আমরা বিস্মিত, হতবাক ও মর্মাহত হয়েছি,” বলা হয় বিবৃতিতে।

বিবৃতিদাতারা অন্যরা হলেন- অধ্যাপক অনুপম সেন, নাট্যকার রামেন্দু মজুমদার, চিত্রশিল্পী হাশেম খান, কবি নির্মলেন্দু গুণ, নাট্যকার মামুনুর রশীদ, অধ্যাপক মুনতাসির মামুন, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, গোলাম কুদ্দুছ, মুহাম্মদ সামাদ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসূফ, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. কামরুল ইসলাম খান ও শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী।

মাহমুদুরের মুক্তি এবং তার পত্রিকার ছাপাখানা খুলে দেয়া, দিগন্ত ও ইসলামিক টেলিভিশনের সম্প্রচার চালুর দাবি জানিয়ে শনিবার বিবৃতি দেন ১৫টি দৈনিক ও একটি অনলাইন পত্রিকার সম্পাদক।

শাহবাগ আন্দোলনের বিরোধী মাহমুদুরকে পত্রিকার মাধ্যমে ধর্মীয় উস্কানি সৃষ্টির অভিযোগে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে আসছিলো গণজাগরণ মঞ্চ।

খালেদা জিয়ার সাবেক এই উপদেষ্টাকে মুক্তি দিতে সম্পাদকদের বিবৃতিতে ফেইসবুকসহ সোস্যাল মিডিয়ায়ও প্রতিক্রিয়া হয়।

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সব কিছু খতিয়ে না দেখে সম্পাদকরা বিবৃতি দিয়েছেন।

তিনি জানান, বিকৃত তথ্য প্রচার, মিথ্যাচার, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে এমন সব বিষয় প্রচার করায় আমার দেশের বিরুদ্ধে ববস্থা নেয়া হয়েছে। আর মাহমুদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সুনির্দিষ্ট ফৌজদারি অভিযোগে।

বিশিষ্ট নাগরিকের ১৫ বিবৃতিতে বলা হয়, “আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সংবাদপত্রের স্বাধীনতার নামে উদ্দেশ্যপূর্ণভাবে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ, দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি বিনষ্ট ও দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টিতে উস্কানি প্রদান, নিরাপত্তা বাহিনী ও রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানে হামলার ইন্ধন যুগিয়েছে।”

মাহমুদুর রহমানকে গত ১১ এপ্রিল গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই দিনই পুলিশ পত্রিকাটির ছাপাখানায় তালা ঝুলিয়ে দেয়।
সূত্রঃ বিডিনিউজ২৪