ট্রাইবুনাল প্রদত্ত যুদ্ধাপরাধী কামারুজ্জামানের ফাঁসির আদেশের সম্পূর্ণ রায় (২১৫ পাতা ইংরেজী)
এইদেশ সংগ্রহ, বৃহস্পতিবার, মে ০৯, ২০১৩


একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মোহাম্মদ কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে অপহরণ, নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণসহ একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচটি অভিযোগ সুনির্দিষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে দুটি অভিযোগে তাঁকে সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার আদেশ দেয়া হয়েছে। দুটি অভিযোগ যাবজ্জীবন ও আরেকটি অভিযোগে ১০ বছরের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করা হয়েছে। অন্য আরও দুটি অভিযোগ থেকে খালাস দেয়া হয়েছে। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ জনকীর্ণ আদালতে পিনপতন নীরবতার মধ্যে এই ঐতিহাসিক রায় ঘোষণা করেন। এ সময় ট্রাইব্যুনালের অপর দু’ সদস্য ছিলেন বিচারপতি মোঃ মজিবুর রহমান মিয়া ও জেলা জজ মোঃ শাহিনুর ইসলাম।

পাঠকদের আগ্রহ এবং সকলের জন্য ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে সংরক্ষণের সুযোগ রেখে এইদেশ ডটকম-এর পক্ষ থেকে বিচারকদের প্রদত্ত সম্পূর্ণ রায়ের ২১৫ পাতার ইংরেজী কপি লিঙ্ক-এ দেয়া হলো।

লিঙ্ক